তৌকীর আহমেদ এর পরিচালনায় বহুল প্রতীক্ষিত চলচ্চিত্র ‘হালদা’ পরিবেশন করবে তুমুল দর্শকপ্রিয়তা পাওয়া ‘ঢাকা অ্যাটাক’ চলচ্চিত্রের পরিবেশক দি অভি কথাচিত্র।

পরিচালক তৌকীর আহমেদ ও দি অভি কথাচিত্রের প্রধান জাহিদ হাসান অভি চ্যানেল আই অনলাইনকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ডিসেম্বরে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে। চলচ্চিত্রটির পোস্টার ডিজাইন করেছেন বিপাশা হায়াত। এটি তৌকীর আহমেদের পরিচালনায় পঞ্চম চলচ্চিত্র।

এ প্রসঙ্গে শনিবার রাতে তৌকীর আহমেদ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, আমরা ভালো পরিবেশক খুঁজছিলাম। ‘ঢাকা অ্যাটাক’ যেভাবে সাফল্যের সঙ্গে পরিবেশন করেছে ‘দি অভি কথাচিত্র’ তাতে আমরাও আমাদের ছবিটি পরিবেশনার দায়িত্ব তাতের হাতে নিশ্চিন্তে তুলে দিয়েছি।

webnewsdesign.com

অন্যদিকে প্রযোজক-পরিবেশক জাহিদ হাসান অভি বলেন, আমরা ঢাকা অ্যাটাক দিয়ে যেমন নাগরিক মনকে স্পর্শ করতে সক্ষম হয়েছি। আশা করি ‘হালদা’ দিয়ে প্রান্তিক এবং গ্রামীণ জীবনকেও ছুঁতে পারব। সেই ঘরাণার দর্শকও সিনেমা হলে আসবে বলে বিশ্বাস করি। ছবিটির গান দেখেছি ও শুনেছি। ‘মনপুরার’ সঙ্গীত সাফল্যকে এ ছবির গান অতিক্রম করবে বলে আশা করছি।’

ছবিটি দেশের বৃহত্তম প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হালদা নদীকে ঘিরে গড়ে উঠেছে। মা মাছেরা এপ্রিল থেকে জুন পর্যন্ত অমাবস্যা বা পূর্ণিমার তিথিতে এ নদীতে ডিম ছাড়ে। এই নদী ও নদীর গতি-প্রকৃতি, নদীর ক্ষয় ও নদীতীরবর্তী মানুষের জীবনের প্রবাহ ও জটিলতা তুলে ধরা হয়েছে গল্পে। আজাদ বুলবুলের গল্পে ‘হালদা’য় প্রধান চারটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, মোশাররফ করিম, নুসরাত ইমরোজ তিশা ও ফজলুর রহমান বাবু। সিনেমায় খলচরিত্রে অভিনয় করছেন জাহিদ হাসান।মোশাররফ করিম থাকছেন জেলের ভূমিকায়। স্বপ্নবাজ তরুণীর চরিত্রে অভিনয় করছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। তার বাবা চরিত্র রুপায়ণ করেছেন ফজলুর রহমান বাবু।

‘আমরা ক’জন’-এর প্রযোজনায় চলচ্চিত্রটিতে আরো অভিনয় করছেন দিলারা জামান, শাহেদ আলী, রুনা খান প্রমুখ। প্রযোজনায় আমরা ক’জন। চলচ্চিত্রটির সংগীত পরিচালনা করেছেন পিন্টু ঘোষ।

তৌকীর আহমেদের পরিচালনায় সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড প্রযোজিত ‘অজ্ঞাতনামা’। ছবিটি ৬৯তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের বাণিজ্যিক শাখা মার্শে দ্যু ফিল্মে দেখানো হয়েছে। ২১ অক্টোবর শেষ হওয়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবেও শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র এবং পরিচালক বিভাগে পুরস্কৃত হয়েছে ছবিটি। এছাড়া ইতালিসহ আরও কয়েকটি উৎসবে পুরস্কৃত হয়েছে এটি। চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবে তৌকীর আহমেদ এর বাকী চলচ্চিত্রগুলো হল ‘জয়যাত্রা (২০০৪), ‘রূপকথার গল্প (২০০৬)’ ও ‘দারুচিনি দ্বীপ (২০০৭)। তার দ্বিতীয় এবং তৃতীয় চলচ্চিত্রটিও প্রযোজনা করেছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম।