• শিরোনাম

    হাজীগঞ্জ বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফরহাদকে হেয় করতে কাজ করছে একটি চক্র

    মেহেদী হাছান/ রবিউল আউয়াল বিপ্লব | ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ৭:৪৯ অপরাহ্ণ

    হাজীগঞ্জ বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফরহাদকে হেয় করতে কাজ করছে একটি চক্র

    হাজীগঞ্জ উপজেলার বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেনকে সামাজিক ভাবে হেয় করতে কাজ করছে একটি চক্র। এ চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ প্রতিষ্ঠানের কাজ কর্ম নিয়ে ও বিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম নিয়ে গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেন এর পিচনে লেগে পড়ে। যদিও চক্রটিতে কে বা কারা জড়িত তা জানেন না গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেন।

    বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেন এ প্রতিবেদককে জানান, গত ৭ বছর পূর্বে তিনি বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন।

    গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেন স্কুলে যোগদানের পর থেকেই তিনি তার শিক্ষা কার্যক্রম নিয়ে অনেকটাই সুনাম অর্জন করেছে। অল্প দিনে গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেন এর সুনাম ও শিক্ষকতার মহান পেশাকে আকড়ে ধরেছন ফরহাদ হোসেন।

    webnewsdesign.com

    গত ২৩ সেপ্টেম্বর দৈনিক চাঁদপুর কন্ঠ অনলাইনসহ বেশ কয়েকটি অনলাইনে সংবাদকর্মীকে ভুল তথ্য দিয়ে গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেনকে জড়িয়ে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে সামাজিক ভাবে হেয় করতে উঠে পড়ে লেগেছে।

    এতে করে বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গত দু বছর পূর্বে পাশ করা এক ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বিয়েছে করছে বলে সংবাদ প্রকাশ করে। যা কোন ভাবেই সত্য নয়।

    শিক্ষক ফরহাদ হোসেন আরো জানান, বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গত দু বছর পূর্বে পাশ করা যে ছাত্রীকে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেছে তা মিথ্যা ও ভুল। তিনি আরো জানান, আমি শিক্ষক হিসেবে যোগদানের পর থেকে ঐ ছাত্রীর মাকে নিজের বোন বানিয়েছি এবং তার সাথে ভাই ও বোনের সম্পর্ক হয়। এতে করে ঐ ছাত্রীকে আমি আমার মেয়ের মতই শিক্ষা কার্যক্রম ও তার গনিত বিষয়ে পড়াশুনার দায়িত্ব নেই।

    শিক্ষক ফরহাদ হোসেন আরো জানান, যে খানে বাবা মেয়ের সম্পর্ক সে খানে কি করে তারা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ঘটনা রটায়, এ নিয়ে আমি খুবেই মর্মাহত।

    এ ঘটনায় ঐ ছাত্রী জানান, শিক্ষক ফরহাদ হোসেন এর সাথে বাবা মেয়ের সম্পর্ক। তিনি আমার গনিত বিষয়ের শিক্ষক। তিনি শিক্ষক বা বাবার সম্মানই পান আমার কাছ থেকে। আমাকে নিয়ে যে সংবাদ প্রকাশ করেছে তা মিথ্যা ও আমাদের পরিবারকে হেয় করার জন্যই এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে।

    ঐ ছাত্রীর মা জানান, আমার মেয়ে ও শিক্ষক ফরহাদকে নিয়ে আমি কোন সাংবাদিকের সাথে কথা বলিনি, আর কোন সাংবাদিককেও আমি চিনিনা। এমন কি শিক্ষক ফরহাদ হোসেন ও ইংরেজি শিক্ষক ইয়াকুব আলীসহ অন্য কোন শিক্ষকও আমাকে কোন প্রকাশ হুমকি ধমকি দেয়নি, যে তাদের ভয়ে আমি কোন কথা গোপন রাখবো, এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। শিক্ষক ফরহাদ হোসেন আমার আপন ভাইয়ের মতই আমি দেখি। সে যেমন আমার বাসায় আসে ঠিক তেমনি আমরাও সবাই তাঁর বাসায় বেড়াতে যাই। তিনি আরো জানান, আমার মেয়েকে নিয়ে যারা এমন ষড়যন্ত্র করছে তাদের বিরুদ্ধে আমি আদালতের মাধ্যমে আইনের আশ্রয় নিবো।

    ঐ ছাত্রীর বাবা (প্রবাস থেকে জানান), আমার মেয়েকে নিয়ে যারা ষড়যন্ত্র করছে, তাদের বিরুদ্ধে আমি আইনি ব্যবস্থা নিবো। শিক্ষক ফরহাদ হোসেন আমার ভাই।

    বড়কুল রামকানাই উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিত শিক্ষক ফরহাদ হোসেন জানিয়েছেন, শিক্ষকতা পেশা মহান পেশা। এ পেশাকে সম্মান দেখিয়েই আমি এ পেশায় এসেছি। আমার স্ত্রীও একজন শিক্ষক। আমার ২জন পুত্র সন্তান ও এক কন্যা সন্তান রয়েছে। আমার বিরুদ্ধে যে বা যারা এমন মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করেছে আমি তার তীব্র প্রতিবাদ জানাই এবং আগামী দিনে নিজেকে আরো সতর্ক ভাবে নিজেকে পরিচালিত করবো।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
    বোকরা নিষিদ্ধ! হাজীগঞ্জে বোরকা পরার অপরাধে আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ
    বোকরা নিষিদ্ধ! হাজীগঞ্জে বোরকা পরার অপরাধে আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ