• শিরোনাম

    হাজীগঞ্জে জেএসসি পরিক্ষার দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তার শাস্তির দাবীতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের মানববন্ধন

    | ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ৪:২৫ অপরাহ্ণ

    হাজীগঞ্জে জেএসসি পরিক্ষার দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তার শাস্তির দাবীতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের মানববন্ধন

    বোরকা পরার অপরাধে জেএসসি পরিক্ষার্থীদের আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ
    হাজীগঞ্জে জেএসসি পরিক্ষার দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তার শাস্তির দাবীতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের মানববন্ধন
    হুমায়ুন কবির॥


    জেএসসির পরিক্ষার কেন্দ্রে বোরকা পরে আসার কারনে কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলীগঞ্জ পিটিআই এর ইন্সট্রাক্টর সফিকুল ইসলাম ছাত্রীদের খাতা আধা ঘন্টা আটক করে রাখে। এ ঘটনাটি ঘটেছে হাজীগঞ্জ উপজেলার আমিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ে। এ নিয়ে স্থানীয় জনতা ও অভিভাবকগনের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। সেই সময়ে স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হয়ে।

    সংবাদ প্রকাশের পর কেন্দ্রে দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা আরো বেশী ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। ঐ বোকরা পড়া ছাত্রীদের উপর তিনি কড়া নজর রাখেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঐ কেন্দ্রে আরো একজনকে ভারপ্রাপ্তের দায়িত্ব দেন।

    webnewsdesign.com

    এতে দেখা যায় একটি পরিক্ষার কেন্দ্রে দুজন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করেন। গত ১৭ নভেম্বর জেএসসি পরিক্ষা শেষ হয়। পরিক্ষা শেষে গত ২০ নভেম্বর বোরকা পড়া ছাত্রিরা পেরাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে তাদের অভিভাবকসহ মানববন্ধন করে। ছাত্রীদের অভিভাবকরা অভিযোগ করে বলেন, আমাদের কোমলমতী মেয়েদের বোরকা পরার অপরাধে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলীগঞ্জ পিটিআই এর ইন্সট্রাক্টর সফিকুল ইসলাম এর শাস্তির দাবী জানাই।

    ছাত্রীরা জানান, জেএসসির পরিক্ষার কেন্দ্র হাজীগঞ্জ আমিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় অনেকটাই ব্যতিক্রম ভাবে পরিক্ষা নিচ্ছেন কেন্দ্রে দায়িত্ব প্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলীগঞ্জ পিটিআইয়ের ইন্সট্রাক্টর মো. সফিকুল ইসলাম। তিনি পরিক্ষার প্রথম দিন থেকেই বোরকা পরা পরিক্ষার্থীদের বিভিন্ন ভাবে নাজেহাল করছে বলে অনেক পরিক্ষার্থী তাদের অভিভাবদের অভিযোগ করেছে।

    পরিক্ষার ২য় দিন বাংলা ২য় পত্র পরিক্ষা চলাকালীন এ দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা কেন্দ্রের বিভিন্ন হলে গিয়ে যে সমস্ত পরিক্ষার্থীদের পরনে বোরকা ছিলো তাদের পরিক্ষার খাতা হল পরিদর্শকদের তুলে নিয়ে কাউকে ১০ মিনিট কাউকে ১৫ মিনিট আবার কাউকে আধাঘন্টা পরে খাতা দেয়ার নির্দেশ দেন। রবিবার ইংরেজী প্রথম পত্র পরিক্ষা দিতে আসা পরিক্ষার্থীরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করলে এ নিয়ে পরিক্ষার কেন্দ্রে এবং কেন্দ্রের বাহিরে সচেতন অভিভাবকদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়।

    বোকরা পরা পরিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন, আমরা বোকরা পরে স্কুলেও যাই। কিন্তু আমাদের জেএসসি পরিক্ষার কেন্দ্রে বোরকার কারণে কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ২০ মিনিট খাতা আটক করে রাখার নির্দেশ দেন। এ কারনে আমাদের পরিক্ষা তেমন একটা ভালো হয়নি।

    জানতে চাইলে হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদের খতিব মুফতি আব্দুর রউফ বলেন, এ কাজটি মোটেও ঠিক হয়নি, এটি আমাদের ধর্মের উপর আঘাত এনেছে।
    আলীগঞ্জ হযরত মাদ্দাখাঁ রহ. মসজিদের খতিব মুফতি ফজলুল কাদের বাগদাদী বলেন, ধর্মীয় রিতি-নীতি মেনে চলা সকলের স্বাধীনতা আছে।

    পর্দা করা সকল নারী পুরুষের উপর ফরজ। যেহেতু পরিক্ষার্থীগন পর্দা করে গিয়েছে পরিক্ষার কেন্দ্রে তাদের বোরকার উপর যে হস্তক্ষেপ করা হয়েছে তা নিঃসন্দেহ ধর্মীয় অনুভুতির উপর আঘাত এনেছে।
    এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও এ পরিক্ষা কেন্দ্রের কেন্দ্র সচিব মো. শাহ আলী রেজা আশরাফী জানান, এ বিষয়টি আমার কানে এসেছে। ১৫/২০ মিনিট খাতা আটকে রাখা উচিৎ হয়নি। বোরকা পরা পরিক্ষার্থীদেরকে প্রথমে সর্তক করা দরকার ছিলো।

    সহকারী কেন্দ্র সচিব আবুল কাশেম জানান, যখন এ ঘটনাটি ঘটেছে তার পরবর্তীতে আমি শুনেছি। পরিক্ষার হলে ইউনিফর্ম পরে আসতে হবে তা কোনো বাধ্যতামূলক নয়। আর যে কাজটি করেছে তা অত্যান্ত দুঃখজনক।

    অভিযুক্ত পরিক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা ও আলীগঞ্জ পিটিআইয়ের ইন্সট্রাক্টর মো. সফিকুল ইসলাম জানান, আমি পরিক্ষার্থীদেরকে ইউনির্ফম পরে আসার জন্য বলছি। পরিক্ষার খাতা আটকের বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।

     

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
    হাজীগঞ্জে ছোট বোনের হাতে বড় বোন খুন
    হাজীগঞ্জে ছোট বোনের হাতে বড় বোন খুন