• শিরোনাম

    হাজীগঞ্জসহ জেলার সর্বত্র ইংরেজী সাইনবোর্ডের জয়জয়কার

    | ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ১০:৪৫ পূর্বাহ্ণ

    হাজীগঞ্জসহ জেলার সর্বত্র ইংরেজী সাইনবোর্ডের জয়জয়কার

    হাজীগঞ্জসহ জেলার সর্বত্র ইংরেজী সাইনবোর্ডের জয়জয়কার
    বাংলায় সাইনবোর্ড শুধু আদেশেই সীমাবদ্ধ!
    ইমতিয়াজ সিদ্দিকী তোহা॥
    ২১ ফেব্রুয়ারী মহান ভাষা শহীদ দিবস আজ। ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের ৬৬ বছর চলছে। যে মাতৃভাষা বাংলার জন্য বাংলার দামাল ছেলেরা ১৯৫২ সালে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে শহীদ হয়েছেন তাদের আত্মত্যাগে আজ আমরা পেয়েছি বাংলায় কথা বলার অধিকার। পেয়েছি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। কিন্তু সে বাংলা ভাষার সঠিক ব্যবহার আজ উপেক্ষিত।
    সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, হাজীগঞ্জ পূর্ব বাজার ব্রাদার্স ফার্ণিচার, এস.এ পরিবহন, উত্তরা মোর্টর্স, মাই ওয়ান, ওয়ালটন, বেষ্ট ইলেকট্রনিক্স, মার্সেল, মধ্য বাজারে অপো, ওয়ালটন, হুয়াওয়ে, রেমন্ড ট্রেইলার্স, সনি শোরুম, অঙ্গনা ফেব্রিক্স, এপেক্স, এলজি শোরুম, মধ্যবাজারে স্যামসাং, বিটুউইন, বাটা, এলজি, এবং পশ্চিম বাজারে হুয়াওয়ে, স্যাম্পনি, স্যামসাং ও রাফা টাওয়ার। এসব দোকান ও শোরুমের সামনে ইংরেজী লেখা বড় বড় সাইনবোর্ড ঝুলছে। সেখানে দোকানগুলোর নাম ইংরেজীতে লেখা থাকলেও বাংলায় লেখা নেই। অথচ উচ্চ আদালতের নির্দেশনা অনুসারে সাইনবোর্ড বাংলায় লেখা বাধ্যতামূলক। শুধু এ কয়েকটি দোকান ও শোরুমই নয় হাজীগঞ্জ সহ জেলার প্রায় বড় বড় বাজারের দোকানগুলো সাইনবোর্ডে বাংলায় ব্যবহার উপেক্ষিত। কেউ বাংলা ও ইংরেজী ভাষা ব্যবহার করছে। আবার কেউ সাইনবোর্ডে ছোট করে বাংলাও ব্যবহার করছে। এছাড়াও দেখা গেছে, সিটি ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংকসহ বেশিরভাগ প্রাইভেট ব্যাংক, বড় বড় ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান এমনকি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল সহ বিভিন্ন ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামও ইংরেজীতে লেখা। এছাড়াও চাঁদপুর-কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কসহ বিভিন্ন সড়কে চলাচলকারী বাস বোগদাদ, তিশা, পদ্মা ও সুরমা সহ বেশির ভাগ বাসের নাম সামনে ইংরেজীতে বড় করে লেখা। আর স্বাধীন বাংলাদেশের মাতৃভাষা বাংলা যে ভাষার জন্য আজ আমরা স্বাধীন ও সার্বভৌম দেশের স্বীকৃতি পেয়েছি সে ‘বাংলা’ ভাষাকে ছোট করে লেখা। উচ্চ আদালতের নির্দেশনা, গণমাধ্যমে প্রচারের পরও কর্তৃপক্ষ সাইনবোর্ড পরিবর্তন করছে না। উচ্চ আদালতের রায় ঘোষণার পর চার বছর পেরিয়ে গেলেও এ কার্যক্রম বাস্তবায়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থাগুলোর কোন তৎপরতা নেই।
    বাংলা বাধ্যতামূলক উচ্চ আদালতের নিদের্শনা ঃ হাইকোর্ট বিভাগে ১৬৯৬/২০১৪ নম্বর রিট পিটিশনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৪ সালের ১৭ ফ্রেব্রুয়ারি দেয়া আদেশে বলা হয়, ‘সব সাইনবোর্ড,বিলবোর্ড, ব্যানার, গাড়ির নম্বর প্লেট, সব দফতরের নামফলক এবং ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ইংরেজি বিজ্ঞাপন ও মিশ্র ভাষার ব্যবহার বন্ধ করতে হবে’। ২০১৪ সালের ২৯ এপ্রিল হাইকোর্টের অন্তর্বর্তিকালীন আদেশের স্থানীয় সরকার বিভাগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়কে আদেশ বাস্তবায়নের নির্দেশ দেয়া হয়। এরপর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবের নেতৃত্বে আন্তঃ মন্ত্রণালয়ের সভায় সিদ্ধান্ত হয়, সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা, ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডগুলো এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের কাজ করবে।

     

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
    বোকরা নিষিদ্ধ! হাজীগঞ্জে বোরকা পরার অপরাধে আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ
    বোকরা নিষিদ্ধ! হাজীগঞ্জে বোরকা পরার অপরাধে আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ