• শিরোনাম

    স্বার্থের জন্য নয় বরং স্বাধীনতার ইতিহাস টিকিয়ে রাখতেই মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা হয় —— সম্পাদক পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা আবু নঙ্গম পাটোয়ারী দুলাল

    | ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৪:৩৩ অপরাহ্ণ

    স্বার্থের জন্য নয় বরং স্বাধীনতার ইতিহাস টিকিয়ে রাখতেই মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা হয় —— সম্পাদক পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা আবু নঙ্গম পাটোয়ারী দুলাল

    মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার শেষ দিনে সম্পাদক পরিষদের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে
    স্বার্থের জন্য নয় বরং স্বাধীনতার ইতিহাস টিকিয়ে রাখতেই মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা হয়
    —— সম্পাদক পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঙ্গম পাটোয়ারী দুলাল
    চাঁদপুর প্রতিবেদক॥
    চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের উপদেষ্টা,দৈনিক চাঁদপুর সংবাদের উপদেষ্টামন্ডলীর সভাপতি,জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা,আলহাজ্ব আবু নঙ্গম পাটোয়ারী দুলাল বলেছেন,কোন ব্যক্তি স্বার্থের জন্য নয় বরং স্বাধীনতার ইতিহাস টিকিয়ে রাখতেই চাঁদপুরে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা হয়।

    তিনি আরো বলেন,বিজয় মেলা কোন রাজাকারের আশ্রয়-পশ্রয় দেয় না।যারা মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার বিরুদ্ধে কথা বলে তারাই রাজাকার।

    তিনি বলেন,সকলের প্রাণের তরুন প্রজন্মের এই বিজয় মেলা সকলের ঐক্যবদ্ধতার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে তাই চাঁদপুরে বিজয় মেলা হচ্ছে ভবিষৎেও হবে ইনশাল্লাহ।

    webnewsdesign.com

    তিনি চাঁদপুরের কতিপয় সাংবাদিককে রাজাকার ও পাকিস্তানের দালাল আক্ষ্যা দিয়ে বলেন,তরুন প্রজন্ম হাসানআলী মাঠের ইতিহাস জানতে চায়,কারা মুক্তিযুদ্ধের সময় ওই পৌর পার্কে পাকিস্তানের পতাকা উরিয়েছিলো সেটাও জানতে চায়,কারা ছিলো চাঁদপুরের ১ম ৪ শহীদ আর কারা এই দেশ যুদ্ধ করে ছিনিয়ে এনেছিলো এসব সর্বসাধারনকে বার বার মনে করিয়ে দিতেই প্রতি বছর আয়োজন করা হয় এই মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা।তিনি ভবিষৎে মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা হওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে আরো বলেন, ১৯৬৪, ৬৬, ৬৯, ৭০ ও ৭১-এর মা-বোনদের সেই স্মৃতিময় কথা হয় এই বিজয়মেলায়।তাই এখানে প্রতিদিন হাজারো মুক্তিকামী মানুষ ভীড় জমায়।তারা পাকিস্তানি চেতনা লালন করে না বরং তারা বাঙালী ঐতিহ্য ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস মনে ধারন করে।

    সুতরাং কোন কালো অপচেষ্টাই চাঁদপুরের হাসানআলী মাঠে বিজয় মেলা হওয়া থেকে আটকাতে পারেনি ভবিষৎেও পারবেনা।৩০ ডিসেম্বর শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় ‘এসো মিলি মুক্তির মোহনায়’ এই স্লোগানকে ধারণ করা ২৬তম মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার সমাপনী দিনে চাঁদপুরের দৈনিক ও সাপ্তাহিক পত্রিকার সমন্বয়ে গঠিত সম্পাদক পরিষদের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

    দৈনিক চাঁদপুর সংবাদের সম্পাদক ও প্রকাশক, চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের সভাপতি মোঃ আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং দৈনিক মতলবের আলো পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক,চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক কে এম মাসুদ এর পরিচালনায় স্মৃতিচারন অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন, দৈনিক মতলবের আলো পত্রিকার প্রধান সম্পাদক, চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের উপদেষ্টা, যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযুদ্ধা এম এ ওয়াদুদ।তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন,
    ৭১-এ পাকিস্তানি মুসলমানরাই বাঙালী মুসলমান মা-বোনদের ওপর অমানুষিক অত্যাচার নীপিরণ চালিয়েছিলো।

    তাই মুসলমান হলেই অন্যায়ের সাত খুন মাফ হয়ে যাবে না।তিনি আরো বলেন,ইন্দারা গান্ধি যুদ্ধকালীন সময়ে এক টানা ৭২ ঘন্টা আকাশ ভ্রমণের মাধ্যমে পাকিস্তান দ্বারা শোষিত বাঙালীর চিত্র তুলে ধরে বাঙালীর পক্ষে জনমত গড়ে তুলেছিলো তা আমরা গভীর শ্রদ্ধ্যার সাথে স্মরণ করি এবং করবো,কারন আমরা বাঙালী,আর বাঙালীরা উপকারের কৃতজ্ঞতা স্বীকার করতে জানে।তিনি বলেন,চাঁদপুরের ২৬ বছরের স্বাধীনতার গৌরবময় মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চক্রান্ত করেছে চাঁদপুরের একটি সাংবাদিক মহল।

    শুধু মাত্র একটি পদে থেকে লুটপাট করার জন্য এবং মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলাকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য নানান চক্রান্ত ও অপপ্রচার চালিয়েছে।কিন্তু তবুও বিজয় মেলাকে আটকাতে পারেনি।কারন এটা মুক্তিযুদ্ধের বিনিময়ে অর্জিত দেশ।

    কোন স্বাধীনতার অপশক্তি এই দেশ থেকে মুক্তিযুদ্ধ এবং চাঁদপুরের এই মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা আটকাতে পারবে না।এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দৈনিক চাঁদপুর কন্ঠের সম্পাদক ও প্রকাশক, চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের উপদেষ্টা আলহাজ্ব এ্যাডঃ ইকবাল বিন বাশার, দৈনিক চাঁদপুর জমিন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক, চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রোটাঃ রোকনোজ্জামান রোকন, দৈনিক আমাদের কুমিল্লা পাঠক ফোরামের সভাপতি চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের উপদেষ্টা প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন, সাপ্তাহিক দিবাচিত্রের সম্পাদক ও প্রকাশক, চাঁদপুর জেলা সংবাদপত্র সম্পাদক পরিষদের উপদেষ্টা এ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার কার্য নির্বাহ কমিটির চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মহসীন পাঠান, মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলার স্টেয়ারিং কমিটির সাধারন সম্পাদক বদিউজ্জামান কিরন, দৈনিক আজকের দেশকন্ঠের সম্পাদক ও প্রকাশক এনায়েত মজুমদার, দৈনিক চাঁদপুর সময় পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এম কে আরশাদ, সাপ্তাহিক নতুনের ডাক পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মহিউদ্দিন আল আজাদ, মুক্তিযোদ্ধা সাঁতারু সানাউল্লা প্রমুখ।

    পরে রাত ৮ টায় চাঁদপুরের “মৃত্তিকা” সাংস্কৃতিক সংগঠনের মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক আয়োজন পরিবেশন হয় এবং জাতীয় সংগীত “আমার সোনার বাংলা-আমি তোমায় ভালোবাসি” এর মাধ্যমে বিজয়মেলার আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি হয়।

     

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
    হাজীগঞ্জে ছোট বোনের হাতে বড় বোন খুন
    হাজীগঞ্জে ছোট বোনের হাতে বড় বোন খুন