• শিরোনাম

    যুদ্ধ না করেও মুক্তিযোদ্ধার পরিচয়ে ভাতা!

    | ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৭:৫৫ পূর্বাহ্ণ

    যুদ্ধ না করেও মুক্তিযোদ্ধার পরিচয়ে ভাতা!

    মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ

    যুদ্ধ না করেও মুক্তিযোদ্ধার পরিচয়ে ভাতা!

    নিজস্ব প্রতিবেদক

    যুদ্ধ না করেও মুক্তিযোদ্ধার পরিচয়ে ভাতা পাচ্ছেন সোহরাব বেপারী নামে এক ব্যক্তি।

    পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়ায় সরকারি ভাতাপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা হতে তার নাম বাতিলের দাবি জানিয়ে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে লিখিত আবেদন করা হয়েছে।
    শুধু তাই নয়, সরকারি দলের নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা না হয়েও মুক্তিযোদ্ধার পরিচয়ে এলাকায় প্রভাব খাটিয়ে আসছেন। তার প্রভাবের কারণে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ।
    জানা গেছে, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের তৎকালীন ইউনিয়ন কমান্ডার এবং যুদ্ধকালীন সময়ের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ভান্ডারিয়া থানার সাধারণ সম্পাদকসহ কয়েকজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা এই অভিযোগ দায়ের করেছেন।
    গত ১২ ডিসেম্বর মন্ত্রণালয়ে এ অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। অভিযোগে আরও জানা গেছে, পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানার ইকড়ি গ্রামের মৃত আচমত আলী বেপারীর ছেলে সোহরাব বেপারী গত ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে মুক্তিবার্তা বাংলাদেশ গেজেট মূলে মুক্তিযোদ্ধাদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়। তখন সুকৌশলে সোহরাব বেপারী তার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় বাংলাদেশ গেজেটে অন্তর্ভুক্ত করতে সক্ষম হন। তার গেজেট নং-২২৫৮, তারিখ- ১৪/০৫/২০১৫ বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।
    কিন্তু সোহরাব বেপারী কোথাও মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করেননি বলে অভিযোগ করা হয়েছে। তিনি মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নাম সংযুক্ত করে সকল প্রকার সুবিধাসহ সম্মানী ভাতা গ্রহণ করে আসছেন বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।
    পিরোজপুর ভান্ডারিয়া মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ের ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের আহবায়ক ও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বাচ্চু জানান, ‘আমি নিজে একা যুদ্ধে যাইনি। আমি একটি গ্রুপ নিয়ে যুদ্ধে গিয়েছিলাম। সোহরাব বেপারী দেশের কোথাও যুদ্ধ করেনি। যদি করে থাকতো, তাহলে কার অধীনে যুদ্ধ করেছেন, তার কমান্ডার কে ছিলেন? কিন্তু তিনি কিছুই বলতে পারবেন না। তিনি টাকা পয়সা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় তার নাম ঢুকিয়েছেন। অবিলম্বে তার নাম বাতিলের দাবি করছি। এজন্য মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগও করেছি।’
    পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া থানার আতরখালী গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ও ভান্ডারিয়া মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সুলতান আহমেদ অভিযোগ করে বলেন, ‘সোহরাব বেপারী কোন মুক্তিযোদ্ধা নন। তিনি একসময় আমি মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় তিনি আমাকে মুক্তিযোদ্ধা না বলে চুক্তিযোদ্ধা বলে অপমান করতেন। এখন তিনি দেশের বিশাল মুক্তিযোদ্ধা হয়ে বনে গেছেন। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় তার বয়স ছিল মাত্র -১১ বা ১২ বছর।
    তিনি কি করে বা কিভাবে মুক্তিযোদ্ধা হলেন, তা আমার বোধগম্য নয়।’ এদেশের গতি যেভাবে চলছে, তাতে এই ভুয়াদের দাপট চলছে। তাই এই ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার নাম মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার দাবি জানিয়েছি।
    আর ভাড়ারিয়া থানার ইকড়ি গ্রামের সুলতান আহমেদ জানান, ‘আমি যুদ্ধের সময় আমাদের ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধাদের কমান্ডার ছিলাম। সোহরাব বেপারী দেশের কোথায় যুদ্ধে করেছেন, তার কোন উত্তর দিতে পারবেন না। আর পুরো পিরোজপুর জেলার কোথাও সে যুদ্ধ করেনি।
    তাহলে সে কোথায় যুদ্ধ করে মুক্তিযোদ্ধা হলেন? তিনি জালিয়াতির মাধ্যমে আমার সই স্বাক্ষর ও সিল বানিয়ে কাগজপত্র তৈরি করে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা হয়ে আসল মুক্তিযোদ্ধা সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন।
    তিনি আরও বলেন, একবার তার বিষয়টি তদন্তের জন্য লোকজন এসেছিলেন। আমি তাদের প্রকৃত ঘটনা এবং তিনি যে যুদ্ধ করেন তিনি তা তাদের জানিয়ে দিয়েছি। কিন্তু এখনও তার নাম মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় রয়েছে। তাই অবিলম্বে তার নাম তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।
    আর একই এলাকার মুক্তিযোদ্ধা গেজেট নং-২২৩৫, লাল বই নয়, ০৬০৫০০৮৬ মুক্তিযোদ্ধা বদরুল আলম জানান, ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় সোহরাব বেপারীর বয়স ছিল মাত্র ১১ কি ১২ বছর। পুরো পিরোজপুর কেন, বাংলাদেশের কোথাও কোন জায়গায় স্বাধীনতা যুদ্ধের কোন কর্মকান্ডে তিনি অংশগ্রহণ করেননি। তবে আমার সন্দেহ হয়, তৎকালীন মুক্তিযোদ্ধাদের থানা কমান্ডারের সহযোগিতায় ভুয়া কাগজপত্র তৈরি করে মুক্তিযোদ্ধা হতে পারেন বলে আমার সন্দেহ হচ্ছে। এ ব্যাপারে ভাতাপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা সোহবরাব আলীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
    বোকরা নিষিদ্ধ! হাজীগঞ্জে বোরকা পরার অপরাধে আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ
    বোকরা নিষিদ্ধ! হাজীগঞ্জে বোরকা পরার অপরাধে আধাঁঘন্টা খাতা আটক রাখার অভিযোগ