• শিরোনাম

    ম্যার্কেলই আবার চ্যান্সেলর!

    | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৩:৫৮ অপরাহ্ণ

    ম্যার্কেলই আবার চ্যান্সেলর!

    বৃষ্টিস্নাত সাপ্তাহিক ছুটির দিন গতকাল রোববার সকাল আটটা থেকে শুরু হয় জার্মানির পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। সকালের দিকে ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভিড় কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে ভোটার উপস্থিত। ভোট চলে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত।
    এবারও আঙ্গেলা ম্যার্কেল বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। আর তা হলে টানা চতুর্থবার নির্বাচিত হবেন তিনি। তিন দফায় ১২ বছর ধরে ক্ষমতায় আছেন তিনি। তাঁর দল ক্ষমতাসীন ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নের বিজয় অনেকখানি নিশ্চিত বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে।
    নির্বাচনের আগে সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছিল, দলটি ৩৬ শতাংশ ভোট পেতে পারে। সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দল ২২ শতাংশ আর কট্টর ডানপন্থী দল অলটারনেটিভ ফর জার্মানি পেতে পারে ১০ শতাংশ ভোট।
    প্রেসিডেন্ট ফ্রাঙ্ক ভাল্টার স্টাইনমায়ার ও পার্লামেন্টের সাবেক স্পিকার নবার্ট লেমার্ট জার্মানির গণতন্ত্র সমুন্নত রাখতে এবং জাতীয়তাবাদী শক্তির উত্থানের বিরুদ্ধে সবাইকে সজাগ থাকতে আহ্বান জানিয়েছেন।
    গতকাল বার্লিন, মিউনিখ, হামবুর্গ, স্টুটগার্ট, ফ্রাঙ্কফুর্ট, ডুসেলডর্ফ, কোলন, হ্যানোভার প্রভৃতি বড় শহরের ভোটকেন্দ্রগুলোতে বিপুলসংখ্যক ভোটার উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। চার বছর আগে ২০১৩ সালে জার্মানির ১৮তম পার্লামেন্ট নির্বাচনে ৭১ শতাংশ ভোটার ভোট দিয়েছিলেন।
    ম্যার্কেল তাঁর নিজ এলাকা মেকেলবুর্গ ফর পোমেন রাজ্যের রুগেন-গ্রাইফভাল্ডারের ভোটকেন্দ্রে ভোট দেন। অপর দিকে তাঁর অন্যতম প্রতিদ্বন্দ্বী সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দলের মার্টিন শুলজ ভোট দেন নিজ এলাকা নর্থরাইন ভেস্টারফেল রাজ্যের ভুরসলেনে।
    কট্টর ডানপন্থী, ইসলাম, শরণার্থী ও অভিবাসনবিরোধী অলটারনেটিভ ফর জার্মানি দলটি নির্বাচনে ৭০টির মতো আসন পেতে পারে। ১৯৬০ সালের পর এই প্রথম লোকরঞ্জনবাদী দলের পক্ষে সমর্থন বেড়েছে দেশটিতে। কট্টর ডানপন্থী দলটি পার্লামেন্টে গেলেও জার্মানির রাজনৈতিক ধারা অনুযায়ী সংসদে অন্য গণতান্ত্রিক দলগুলো তাদের বিরুদ্ধে একযোগে কাজ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
    এবার ভোটারের সংখ্যা প্রায় ৬ কোটি ১০ লাখ, তার মধ্যে নারী ভোটারের সংখ্যা প্রায় ৩ কোটি ১০ লাখ। এই ভোটাররা প্রত্যেকে দুটি করে ভোট দেন। একটি ভোটপ্রার্থীকে, অপরটি দলকে। কোনো দল মোট ভোটের ৫ শতাংশ না পেলে সেই দলের সংসদে যাওয়ার সুযোগ নেই। জার্মান পার্লামেন্টে ৫৯৮ আসনের মধ্যে ২৯৯টিতে সরাসরি নির্বাচন হয় আর বাকি ২৯৯ আসনে দলীয় ভোটপ্রাপ্তির শতাংশের হিসাব অনুযায়ী বিভিন্ন দলের তৈরি করা প্রার্থীর তালিকা থেকে সংসদ সদস্য হবেন।
    জার্মানির গণমাধ্যম অতি জাতীয়তাবাদী ও লোকরঞ্জনবাদী দলটিকে কেন ভোট দেওয়া উচিত নয়, তা নিয়ে নানা বিশ্লেষণধর্মী লেখা প্রকাশ করেছে।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
    করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে হাজীগঞ্জের নারীর মৃত্যু
    করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে হাজীগঞ্জের নারীর মৃত্যু