• শিরোনাম

    মিলাদুন্নবীকে অস্বীকার করে কেউ মুমিন হতে পারবে না -আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ

    | ২৮ নভেম্বর ২০১৭ | ১১:১১ পূর্বাহ্ণ

    মিলাদুন্নবীকে অস্বীকার করে কেউ মুমিন হতে পারবে না -আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ

    মিলাদুন্নবীকে অস্বীকার করে কেউ মুমিন হতে পারবে না -আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ

    বার্মিংহামে পবিত্র মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে কাসিদায়ে বুরদাহ খতম

    লন্ডন সংবাদদাতা

    যুক্তরাজ্যের বার্মিংহামে অবস্থিত বৃহৎ ইসলামি মারকাজ সিরাজাম মুনিরা জামে মসজিদ ও এডুকেশন সেন্টারের পরিচালক আলহাজ হাফিয সাব্বির আহমদ বলেন, পবিত্র মিলাদুন্নবী (সা.)’র আলোচনা অত্যন্ত বরকতময় ও সওয়াবের কাজ। আল্লাহর রাসূল (সা.) এসব আলোচনাকে সমর্থন করেছেন ও আলোচনাকারীদের জন্য সুসংবাদ প্রদান করেছেন। মিলাদুন্নবী (সা.) পালন করা নিয়ে যারা ফিতনা করেন তারা সবকিছুতেই ফিতনা খোঁজে বেড়ান। যারা মুসলমানদের ঈমানের কালিমাকে শিরক সাব্যস্থ করেন তারাই এসব ফিতনা মুসলমানদের মধ্যে ছড়িয়ে দেন। মিলাদুন্নবী মানে নবীর জন্ম। আমরা নবীর উপর ঈমান এনেছি। তাই মিলাদুন্নবীকে অস্বীকার করে কেউ মুমিনও হতে পারবে না, মুসলমানও হতে পারবে না।
    পবিত্র মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে গত রোববার যুক্তরাজ্যের বার্মিংহামে অবস্থিত সিরাজাম মুনিরা জামে মসজিদ ও এডুকেশন সেন্টারে বাদ মাগরিব অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা, কাসিদায়ে বুরদাহ শরীফ খতম এবং মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথাগুলো বলেন।
    ক্বারী গোলাম মাহফুজের পরিচালনায় সভায় অতিথি ছিলেন আলহাজ সূফি ক্বারী মো. আব্দুল মুনতাকিম, সাইয়্যিদ মো. আল ইয়াকুবী সাহেবের প্রতিনিধি মো. শাফিক, ফুলতলী ইসলামিক সেন্টার কভেন্ট্রির প্রিন্সিপাল মাওলানা আবুল হাসান, সিরাজাম মুনিরা জামে মসজিদের পরিচালক আলহাজ মো. মাহবুবুর রহমান চৌধুরী, আলহাজ কাজী মো. নানু মিয়া।
    অতিথির বক্তব্যে সূফি ক্বারী আব্দুল মুনতাকিম বলেন, আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তার ফযল ও রহমত প্রাপ্তিতে শুকরিয়া আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন। পৃথিবীর মানুষের জন্য বড় খুশির বার্তা হচ্ছে হযরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের জন্ম। তার এই আগমনী দিনে মুমিন, মুসলমানের সর্বোচ্ছ খুশি প্রকাশ করা উচিত। আল্লাহর এই অনুগ্রহের শুকরিয়া সারা জীবন আদায় করলেও শেষ হবে না। আমাদের জীবনের চেয়েও তাকে বেশি ভালবাসতে হবে, মুহাব্বাত রাখতে হবে। এ না হলে আমরা পরিপূর্ণ মুমিন হতে পারবো না।
    মিসরের সিনাই প্রদেশে জঙ্গীগোষ্ঠীর সদস্যরা শুক্রবারে একটি মসজিদে হামলা করে সূফী তরিকার ২৩৫ জন মুসল্লিকে নির্মমভাবে খুন করেছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন, ফুলতলী ইসলামিক সেন্টার কভেন্ট্রির উপদেষ্টা আলহাজ মৌলভী মকবুল আলী, আলহাজ মো. গোলাম কিবরিয়া, হাজী মো. আব্দুল মালেক, হাজী মো. বাদশা মিয়া প্রমুখ।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
    করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে হাজীগঞ্জের নারীর মৃত্যু
    করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে হাজীগঞ্জের নারীর মৃত্যু