• শিরোনাম

    চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির অনন্য দৃষ্টান্ত

    | ২৪ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৪:৩৩ অপরাহ্ণ

    চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির অনন্য দৃষ্টান্ত

    চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির অনন্য দৃষ্টান্ত
    হারিয়ে যাওয়া ৫০ হাজার টাকা ফিরে পেলেন এক শিক্ষক
    শাহরাস্তি প্রতিবেদক॥
    চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতি ইতিমধ্যেই বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাত্রীদের হারিয়ে যাওয়া মালামাল ফেরত দিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে আসছেন।

    গত ২০ ডিসেম্বর শাহরাস্তিতে মোঃ জসিম উদ্দিন (৩০) নামে এক সিএনজি চালক স্কুল শিক্ষক নিতিশ চন্দ্র করের হারিয়ে যাওয়া ৫০ হাজার টাকা ফেরত দিয়ে সততার এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

    বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার শাহরাস্তি গেইট দোয়াভাঙ্গাস্থ চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির শাহরাস্তি গেইট (দোয়াভাঙ্গা) প্রধান কার্যালয়ে টাকা ফেরত দেয়ার এ ঘটনা ঘটে। স্কুল শিক্ষক, সিএনজি চালক ও এলাকা সূত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুরে শাহরাস্তি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের বাংলা বিষয়ের সিনিয়র শিক্ষক নিতিশ চন্দ্র কর দুপুর ২টায় সূচীপাড়া জনতা ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন শেষে উপজেলার উদ্দেশ্যে চালক জসিম উদ্দিনের সিএনজিতে যাত্রী হিসেবে আরোহন করে।

    webnewsdesign.com

    উপজেলা পরিষদ গেইটে সিএনজি থেকে নেমে উপজেলা শিক্ষা অফিসের কাজ সমাপ্ত করার পর বুঝতে পারেন ব্যাংক থেকে উত্তোলনকৃত তার কাছে থাকা ৫০ হাজার টাকা হারিয়ে যায়। তাৎক্ষনিকভাবে তিনি উক্ত ব্যাংকের কর্মকর্তা মোঃ শাহজাহানকে অবহিত করলে তিনি সূচীপাড়া সিএনজি ষ্ট্যান্ডের লোকদের মাধ্যমে চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সার প্রধান কার্যালয়ে অবহিত করেন।

    অনন্য দৃষ্টান্ত হিসেবে নির্লোভ সিএনজি চালক উক্ত ৫০ হাজার টাকা গাড়িতে পড়ে থাকতে দেখে তা উদ্ধার করে চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন মজুমদারের নিকট জমা দেন। আবুল হোসেন মজুমদার ওই ঘটনা জানতে পেরে সিএনজি মালিক সমিতির দোয়াভাঙ্গায় অবস্থিত নিজস্ব মাইকে তা প্রচার করে দেন। শিক্ষক নিতিশ চন্দ্র কর দোয়াভাঙ্গায় এসে মাইকিংয়ের সংবাদের ভিত্তিতে জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতির কার্যালয়ে গিয়ে ঘটনার সত্যতা খুলে বললে মালিক সমিতি কর্তৃপক্ষ চালক জসিম উদ্দিনের উপস্থিতিতে ওই টাকা ফেরত দেন।

    শিক্ষক নিতিশ চন্দ্র কর জানান, আমি সিএনজি চালিত অটোরিক্সা চালকের সততায় মুগ্ধ হয়েছি। আমার এ উপলব্ধি হয়েছে দেশে এখনো সৎ ও আদর্শবান লোক রয়েছে। আমি চাঁপুর জেলা সিএনজি অটোরিক্সা মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের কাছে কৃতজ্ঞ। এ বিষয়ে চাঁদপুর জেলা সিএনজি চালিত মালিক সমিতির-১৮৭৮ সভাপতি আবুল হোসেন মজুমদার বলেন, বিষয়টি আমি অবগত হওয়ার পর পরই টাকা হাতে নিয়ে আমাদের নির্ধারিত মাইকে মাইকিং করে দেই।

    পরে ওই শিক্ষক আমাদের কার্যালয়ে আসলে জনতা ব্যাংক সূচীপাড়া শাখার কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে আমি টাকাগুলো বুঝিয়ে দেই। তিনি আরো বলেন, আমরা প্রতিটি মাসিক সভায় সিএনজি চালক, মালিক ও শ্রমিকদের হারিয়ে যাওয়া বা গাড়ীতে রেখে যাওয়া কোন মালামাল পেলে তা সিএনজি মালিক সমিতির কার্যালয়ে পৌছে দেওয়ার নিদের্শনা রয়েছে।

    আমি সিএনজি মালিক সমিতির দায়িত্বকালীণ সময় থেকেই আমরা প্রতিদিনই বিভিন্ন মানুষের হারিয়ে যাওয়া মুল্যবান কাগজপত্র, ব্যাগ, নগদ টাকা সহ আনুসাঙ্গিক জিনিসপত্র যাত্রীদের কাছে হস্তান্তর করে আসছি।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
    হাজীগঞ্জে ছোট বোনের হাতে বড় বোন খুন
    হাজীগঞ্জে ছোট বোনের হাতে বড় বোন খুন