• শিরোনাম

    কে এই কিম ডটকম?

    | ২৪ জানুয়ারি ২০১৮ | ১২:৪৪ অপরাহ্ণ

    কে এই কিম ডটকম?

    কে এই কিম ডটকম?

    বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক

    কে এই কিম ডটকম?

    তর্ক-বিতর্ক আর মামলা মোকদ্দমায় জর্জরিত কিম ও তার কিম ডটকম। সফলতা আর বিতর্ক তার জীবনে প্রায় একসঙ্গে চলেছে। ইন্টারনেট জগতে মেগাআপলোড, মেগা প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্ন কারণে তিনি শীর্ষস্থানে উঠে এসেছেন। বিভিন্ন মজার নামেও তিনি পরিচিত, যেমন কিমবল বা কিম টিম জিম ভেস্তর। কেন তিনি এত আলোচিত-সমালোচিত সংক্ষেপে তা জানালাম:

    কিমের জন্ম জার্মানিতে, আর বেড়ে ওঠা নিউজিল্যান্ডে। ইন্টারনেট জগৎ ছাড়াও রাজনীতির জগতে তিনি বেশ দাপট দেখিয়েছেন। ইন্টারনেটের নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা রক্ষার তাগিদে নিউজিল্যান্ডে কিম প্রতিষ্ঠা করেন ‘ইন্টারনেট পার্টি’ নামে রাজনৈতিক দল।

    ২০০৫ সালে তিনি চালু করেন ফাইল শেয়ারিং সেবা মেগাআপলোড। প্রতিষ্ঠানটি অনলাইনে বিভিন্ন ফাইল জমানো ও শেয়ারের সুবিধা দিয়ে থাকে। এরপর থেকেই শুরু হয় বিপত্তি। ২০১২ সালে কপিরাইট আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ করে দেন মার্কিন আদালত। প্রতিষ্ঠানটির ৪ কোটি ২০ লাখ ডলারের সম্পত্তি জব্দ করে নেয় হংকংয়ের শুল্ক বিভাগ। পাইরেসি আইন লঙ্ঘন, প্রতারণা ও মুদ্রা পাচারের অভিযোগে কিম ডটকমকে আটকের নির্দেশ দেন মার্কিন আদালত। নিউজিল্যান্ডের বাড়িতে হেলিকপ্টার নিয়ে অভিযান চালিয়ে তাকে আটকও করে পুলিশ।

    webnewsdesign.com

    ২০০৫ এ হংকংয়ে ফাইল শেয়ারিং সাইট মেগাআপলোড প্রতিষ্ঠার পর একসময় এর দৈনিক ব্যবহারকারীর সংখ্যা পাঁচ কোটিতে দাঁড়িয়েছিল। এতে বৈশ্বিক ইন্টারনেট ট্রাফিকে মেগাআপলোডের অবদান দাঁড়ায় ৪ শতাংশ।

    এরপর ২০১০ এ নিউজিল্যান্ডে চলে আসেন কিম। হঠাৎ তার মনে হয় পরিবারকে অধিক সময় দেওয়া প্রয়োজন। এক ঘোষণায় নিজের জীবনধারায় পরিবর্তন আনার কথাও বলেন তিনি।

    ২০১২ জানুয়ারিতে কিমের জীবনে সবচেয়ে বিপর্যয় ঘটে যায়। তার অনলাইন সাম্রাজ্য এক রকম ধ্বংসের মুখেই পড়ে এ বছরে। মার্কিন কর্তৃপক্ষের অনুরোধে নিউজিল্যান্ড পুলিশ তার অকল্যান্ডের বাড়িতে তল্লাশি চালায়। বড় আকৃতির শিকারি পশুর মূর্তি, বড় অঙ্কের অর্থ ও লাইসেন্স প্লেটে স্টোনড, হ্যাকার ও গিল্টির মতো কথা লেখা ১৮টি বিলাসবহুল গাড়ি জব্দ করে পুলিশ।

    এক মাস পর জামিনে মুক্তি পান কিম ডটকম। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা (এফবিআই) তার বিরুদ্ধে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে সাড়ে ১৭ কোটি ডলার আয়ের অভিযোগ আনে। এছাড়া পাইরেটেড কনটেন্ট সরবরাহের মাধ্যমে তিনি মূল প্রকাশক ও নির্মাতাদের ৫০ কোটিরও বেশি ক্ষতি করেছেন বলে কিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে এফবিআই। নিউজিল্যান্ডে থেকেই এ মামলা মোকাবেলার সিদ্ধান্ত নেন কিম।

    পরে কিম ডটকমের বাড়ি তল্লাশি ও তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিষয় নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এ সময় আদালতের এক রায়ে বলা হয়, কিমের বাড়িতে তল্লাশি অবৈধ ছিল। আর নিউজিল্যান্ডের গোয়েন্দা সংস্থা জিসিএসবিও স্বীকার করে নেয় যে, তারা অভিযানের আগে কিমের ওপর নজরদারি করেছিল। পরবর্তীতে অবশ্য এ রায় বদলে যায়। কিন্তু কিমের ওপর নজরদারি করার বিষয়ে ক্ষমা চান নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীও।

    ২০১৩ তে ক্লাউড স্টোরেজ সাইট মেগা উন্মোচন করেন কিম। আইনি ঝামেলায় মনোনিবেশ করতে পরবর্তীতে তিনি অবশ্য প্রতিষ্ঠান থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। বর্তমানে মেগার নিবন্ধিত গ্রাহক সংখ্যা ২ কোটি ২০ লাখ বলে দাবি করা হয়।

    সেপ্টেম্বর ২০১৪ তে নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ বিশ্বস্ত ১০০ মানুষের তালিকায় তার নাম উঠে আসে। এর পরই তিনি নিজের প্রতিষ্ঠিত ইন্টারনেট পার্টিকে জাতীয় নির্বাচনে টেনে আনেন। ১৫ জন প্রার্থী দাঁড় করালেও তিনি নিজে এ থেকে দূরে ছিলেন। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে কোনো সিটে জয়লাভ করতে পারেনি তার দল।

    সেপ্টেম্বর ২০১৫ কিমকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে দেওয়া হবে কিনা, তা নিয়ে দীর্ঘ বিলম্বের পর শুনানি শুরু হয়। কিমের সঙ্গে যুক্ত হয় তার আরও তিন সহকর্মীর নাম। মেগাআপলোডের সাবেক নির্বাহী ফিন বাতাতো, ম্যাথিয়াস ওর্তম্যান ও ব্র্যাম ভ্যান ডের কক।

    নভেম্বর ২০১৫ তে প্রত্যাশার চেয়েও ছয় সপ্তাহ পর ম্যারাথন এ শুনানি শেষ হয়। প্রসিকিউটরদের মতে, এটি একটি প্রতারণার মামলা। কিন্তু কিম একে অযৌক্তিক, ক্ষতিকর ও অনৈতিক মামলা বলে উল্লেখ করেন। সঙ্গে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনাও করেন।

    ডিসেম্বর ২০১৫ তে নিউজিল্যান্ডের বিচারক নেভিন ডসন ডটকম ও তার তিন সহকর্মীকে যুক্তরাষ্ট্রের হেফাজতে দেওয়া যেতে পারে মর্মে রায় দেন। সেখানে তারা রেকেটিং, প্রতারণা, অর্থ পাচার ও কপিরাইট আইন লঙ্ঘনের মতো মামলার সম্মুখীন হবেন; যাতে সর্বোচ্চ ২০ বছর কারাদণ্ড হতে পারে। ডটকম অবশ্য এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের ঘোষণা দিয়েছেন।

    এরপর ২০১৬ তে ফাইল শেয়ারিং সাইট মেগাআপলোড-এর মাধ্যমে কপিরাইট আইন লঙ্ঘন আর মুদ্রাপাচারের অভিযোগে সাইটটির নির্মাতা কিম-কে যুক্তরাষ্ট্রে পাঠানো হবে কিনা- এ নিয়ে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডে অনেক দিন ধরেই মামলা চলে। এরপর কিম ডটকম-এর আবেদন মেনে নিয়ে আদালতের শুনানি সরাসরি সম্প্রচারের অনুমতি দেয় নিউজিল্যান্ডের এক বিচারক।

    ২০১৭ তে বিভিন্ন কনটেন্ট ও বিক্রি ও ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের ক্ষেত্রে লেনদেনের জন্য একটি বিটকয়েন লেনদেন ব্যবস্থা চালুর পরিকল্পনা ঘোষণা দেয় ফাইল শেয়ারিং সাইট মেগাআপলোড-এর প্রধান কিম ডটকম। ‘বিটকনটেন্ট’ নামের নতুন এই প্রকল্পের ঘোষণা দিয়ে ইউটিউবে ভিডিও পোস্ট করেন তিনি।

    ভিডিওতে তিনি বলেন, ‘ইন্টারনেটে দেওয়া আপনার যে কোনো কনটেন্ট-এর জন্য আপনি লেনদেন করতে পারবেন… আপনি এটি গ্রাহক, আগ্রহীদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারবেন, মূলত আপনি ব্যবসা করছেন আর আপনার কনটেন্ট বিক্রি করতে পারছেন।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
    করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে হাজীগঞ্জের নারীর মৃত্যু
    করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে হাজীগঞ্জের নারীর মৃত্যু