• শিরোনাম

    কঠিন শর্তে ঋণ নিচ্ছে লাভজনক বিপিসি

    | ১০ জানুয়ারি ২০১৮ | ১০:৩৫ পূর্বাহ্ণ

    কঠিন শর্তে ঋণ নিচ্ছে লাভজনক বিপিসি

    কঠিন শর্তে ঋণ নিচ্ছে লাভজনক বিপিসি

    জানুয়ারি ১০, ২০১৮

    বছরের পর বছর লোকসানে থাকা বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন (বিপিসি) দুই অর্থবছর ধরে লাভেই আছে। সরকারের দায়ও পরিশোধ করে যাচ্ছে। এরপরও কঠিন শর্তে জ্বালানি তেল আমদানিতে ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ট্রেড ফাইন্যান্স করপোরেশনে (আইটিএফসি) থেকে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ সুদে ৭০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ নিচ্ছে সংস্থাটি। এরই মধ্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্ট্যান্ডিং কমিটি অন নন-কনসেশনাল লোন কমিটি তা অনুমোদন দিয়েছে। বিপিসি প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর থেকে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে বেশি দামে জ্বালানি তেল কিনে দেশের বাজারে তা কম দামে বিক্রি করে আসছে। সরকারি নীতি অনুযায়ী এত দিন এ ধারাই অব্যাহত ছিল। যে কারণে জ্বালানিতে প্রতি বছর বড় অঙ্কের ভর্তুকি দিয়ে আসছিল সরকার। ফলে এ প্রতিষ্ঠানটিকে সরকারের একটি লোকসানি প্রতিষ্ঠান হিসেবেই ধরা হতো। তবে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমে যাওয়ায় সেই ধারা থেকে বের হতে পেরেছে সংস্থাটি। এখন এটি একটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। তাই দুই অর্থবছর থেকে কোনো ভর্তুকি দিতে হচ্ছে না সরকারকে। উল্টো বিপিসি সরকারের কোষাগারে মুনাফা জমা দিচ্ছে। নিজেদের সামর্থ্য থাকার পরও বিপিসি আইটিএফসি থেকে বিপুল পরিমাণ ঋণ নিচ্ছে। আর অনমনীয় বা কঠিন শর্তের হওয়ায় এ ঋণের সুদের হারও বেশি।
    বিপিসি সূত্রে জানা গেছে, প্রস্তাবিত ৬ মাস মেয়াদি এ ঋণের মার্ক-আপ হবে ৩ দশমিক ৮ শতাংশ। আর ঋণের গ্রান্ট এলিমেন্ট শূন্য দশমিক ১ শতাংশ। সব মিলিয়ে এই ঋণের সুদের পরিমাণ হবে ৩ দশমিক ৯ শতাংশ। তারপরও আইটিএফসিকে স্ট্র্যাটেজিক পার্টনারের দোহাই দিয়ে এ ঋণ নেওয়া হচ্ছে। গত অর্থ বছরও একইভাবে ঋণ নেওয়া হয়েছিল।
    আইটিএফসি সৌদি আর্মাকোর অনকূলে সরাসরি ক্রুড অয়েল আমদানির জন্য এ ঋণ নেওয়া হচ্ছে। ক্রুড অয়েল আমদানির জন্য স্ট্যান্ডবাই এলসি ইস্যু করা হবে। এলসি ফি/কমিশন হবে শূন্য দশমিক ২০ শতাংশ। তবে অনমনীয় বা কঠিন শর্তের হলেও এটি ২০১৬-১৭ অর্থবছরে নেওয়া ঋণের চেয়ে শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ কম।
    গত বছরের অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে এ ঋণ সহায়তা নেওয়ার জন্য বাংলাদেশের একটি উচ্চপর্যায়ে প্রতিনিধি দল জেদ্দা সফর করে। সেখানেই চলতি বছরের জন্য জ্বালানি তেল আমদানির বিষয়ে ৭০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আইটিএফসি। ১৯৭৭ সাল থেকে ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের আইটিএফসির ঋণ সহায়তায় জ্বালানি তেল আমদানি করে আসছে বিপিসি। এরই ধারাবাহিকতায় এ ঋণ নেওয়া হচ্ছে।
    বিপিসি সূত্র বলছে, কঠিন শর্তের হলেও প্রস্তাবিত মার্ক-আপ এখন পর্যন্ত সর্বনিম্ন। বিষয়টি মাথায় রেখেই স্ট্যান্ডিং কমিটি অন নন-কনসেশনাল লোন এ ঋণের ব্যাপারে অনুমোদন দিয়েছে। ফলে অন্য বছরের তুলনায় এ বছর সুদের পরিমাণ কিছুটা কম হবে। ফলে বিপিসি ভুল সিদ্ধান্ত নেয়নি।

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
    দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও যাচ্ছে মতলবের ক্ষীর
    দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও যাচ্ছে মতলবের ক্ষীর