• শিরোনাম

    আপনার শিশুকে রাখুন কৃমি মুক্ত——মেয়র আ.স.ম মাহবুব উল আলম লিপন

    | ০৪ নভেম্বর ২০১৭ | ৩:২৩ অপরাহ্ণ

    আপনার শিশুকে রাখুন কৃমি মুক্ত——মেয়র আ.স.ম মাহবুব উল আলম লিপন

    হাজীগঞ্জে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ উদ্বোধন
    আপনার শিশুকে রাখুন কৃমি মুক্ত
    ————————মেয়র আ.স.ম মাহবুব উল আলম লিপন
    নিজস্ব প্রতিবেদক॥

    হাজীগঞ্জে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ গতকাল শনিবার (৪ নভেম্বর) সকালে পৌরসভার আয়োজনে রান্ধুনীমুড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাইয়ে উদ্বোধন করেন পৌরসভার মেয়র আ.স.ম মাহবুব উল আলম লিপন। এ সময় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, আপনার আদরের শিশুটিকে কৃমির ঔষধ খাইয়ে রাখুন কৃমি মুক্ত। তিনি আরো বলেন, কৃমির আক্রমণ শিশু অপুষ্টির অন্যতম কারণ। শুধু শিশুরাই নয়, কৃমির কারণে বড়রাও অপুষ্টিতে ভোগে। বাংলাদেশে আয়রনের অভাবের কারণে রক্তস্বল্পতায় আক্রান্তের হার অনেক বেশি। এর অন্যতম কারণ হলো পেটে কৃমি। কৃমির আক্রমণে শিশুদের বৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হয়, রক্তস্বল্পতায় ভোগে।

    এমনকি শিশুর মানসিক বৃদ্ধিও বাধাগস্ত হতে পারে। তাই কৃমি নিয়ন্ত্রণ করা জরুরি। এ লক্ষ্যে সরকার আগামী কাল ১ অক্টোবর থেকে ‘জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ’ ঘোষণা করেছে। প্রতিবছরের মতো এবারও সরকারিভাবে সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে কৃমিনাশক ওষুধ সরবরাহ করা হচ্ছে। সেই লক্ষ্যে হাজীগঞ্জ পৌরসভায়ও সকল শিশুকে কৃমির ঔষধ খাওয়ানো হবে। মেয়র আরো বলেন, দূষিত পানি, দূষিত খাবার, নোংরা ও অপরিচ্ছন্ন হাতের মাধ্যমে বেশির ভাগ কৃমির ডিম আমাদের অন্ত্রে প্রবেশ করে। সেখানে ডিম ফুটে বাচ্চা হয়। বাচ্চাগুলো বড় হয়ে নিজেরা ডিম পাড়ে। এ ডিম মলের মাধ্যমে দেহের বাইরে বের হয়ে এসে পানিকে দূষিত করে।

    webnewsdesign.com

    নোংরা হাত ও মাছির সাহায্যে খাবারের মাধ্যমে অন্যকে আক্রান্ত করে। অনেক সময় খালি পায়ে হাঁটলে পায়ের চামড়া ছিদ্র করে কৃমি শরীরে প্রবেশ করতে পারে। কৃমি মানুষের শরীরের ভেতরে বাস করে পুষ্টি উপাদান শোষণ করে। এ জন্য অপুষ্টি ও রক্তস্বল্পতা দেখা দেয়। কৃমি প্রতিরোধ করার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাই যথেষ্ট। শিশুর হাতের নখ সব সময় ছোট রাখুন। শিশু যেন হাতের আঙুল মুখে না দেয় সেদিকে খেয়াল রাখুন। খাবার ঢেকে রাখুন। খাবারে মাছি বসলে সে খাবার শিশুকে খেতে দেবেন না। খাওয়ার আগে-পরে ও প্রসাব-পায়খানার পর শিশুর হাত ধোয়ার অভ্যাস করুন।

    রান্নার আগে এবং শিশুকে খাওয়ানোর আগে অবশ্যই ভালো করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন। শিশুর প্লেট, বাটি, চামচসহ বাসনকোসন, রান্না করার পাত্র ট্যাপের পানিতে না ধুয়ে ফোটানো বিশুদ্ধ পানিতে ধুয়ে নিন। শিশুকে বিশুদ্ধ ও ফোটানো পানি পান করান।
    মেয়র আরো বলেন, শিশুকে মাছ-মাংস ও শাকসবজি ভালো করে সিদ্ধ করে খাওয়ান। শাকসবজি-ফলমূল পরিষ্কার ও বিশুদ্ধ পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। যেসব ফলমূল খোসা নেই সেগুলো খাওয়ার সময় খুব ভালো করে বিশুদ্ধ পানি দিয়ে ধুতে হবে।

    খোসাযুক্ত ফলমূল খাওয়ার আগে পরিষ্কার হাতে খোসা ছাড়িয়ে শিশুকে দিন। শিশুকে বাইরের খাবার একেবারেই খেতে দেবেন না। রাস্তার পাশে আখের রস, ফলমূলের রস, আগে থেকেই কেটে রাখা আনারস, তরমুজ, ঘোলসহ নানা পানীয় বিক্রি করে। এসব খেলে শুধু কৃমিই নয়, এতে আপনার শিশু বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হতে পারে। শিশুকে খালি পায়ে হাঁটা থেকে বিরত রাখুন। স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহার করুন। শিশুকে জুতা পায়ে পায়খানা ব্যবহার করতে শিক্ষা দিন। তিন মাস পর পর শিশুকে কৃমিনাশক ওষুধ খাওয়ান। সেই সঙ্গে পরিবারের সবাইকে কৃমিনাশক ওষুধ খেতে হবে। শিশু কৃমিতে আক্রান্ত হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে মেবেনডাজল ১০০ মিলিগ্রামের একটা বড়ি ১২ ঘণ্টা পরপর তিনদিন বা অ্যালবেনডাজল ৪০০ মিলিগ্রাম একটা বড়ি সেবন করাতে হবে। এর দু-তিন সপ্তাহ পর আরো একটি বড়ি খাওয়াতে হবে।

    জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে রান্ধুনীমূড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মুন্সী মোহাম্মদ মনিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, পৌর প্যানেল মেয়র-২ মো. শুকু মিয়া, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খাজা সাফিউল বাসার রুজমন। কোরআন তেলওয়াত করেন বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক মো. মিনহাজ উদ্দিন মজুমদার, গীতা পাঠ করেন সহকারি শিক্ষক স্মৃতি রেখা দেবনাথ।

    বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক মো. ছারওয়ার আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পৌর ১০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর খোরশেদ আলম ভুট্টো, ১২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোতালেব হোসেন মতু। এ সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাছিমা আক্তারসহ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের অন্যান্য সদস্য, অভিভাবক, পৌরসভার অন্যান্য কর্মকর্তা ও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীগন উপস্থিত ছিলেন।

    অনুষ্ঠানের শুরুতেই পৌর মেয়র আসম মাহবুব উল আলম লিপন সকল শিক্ষার্থীর মাঝে চকোলেট বিতরণ এবং বক্তব্য শেষে কৃমিনাশক ঔষূধ খাওয়ান। তিনি শিক্ষার্থীদের সাথে কুশল বিনিময় ও সকল শিক্ষার্থীকে শপথ পাঠ করান।

     

     

     

    Leave a comment

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
    বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে চাকরি
    বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে চাকরি